রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:৫৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
কুষ্টিয়ায় জমি সংক্রান্ত জেরে চাচাকে খুন : ভাতিজা আটকজাতীয় পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন ও অংশগ্রহনকারী শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা।শাল্লায় উদযাপিত হয় জাতীয় মীনা দিবস-২০২২।হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে বজ্রপাতে দুই কৃষকের মৃত্যুসুনামগঞ্জ দিরাইয়ের ছাদিরপুর স্টেশনে একটি স্টেশনারী দোকানে অগ্নিকান্ড, প্রায় চারলাখ টাকার মালামাল পুড়ে ছাঁইনাসিরনগরে আর্দশ বীজতলা করে রোপা আমন রোপন হচ্ছে। বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা।।পার্কিং ট্রাকের পিছনে প্রাইভেট কারের ধাক্কা সুনামগঞ্জ -সিলেট মহাসড়কে নিহত ১ আহত ২নাসিরনগরে দূ্র্গাপূজা উপলক্ষে আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভাবিশ্বনাথে আগাম শীতকালীন সবজি চাষে ব্যস্ত কৃষকরাবিশ্বনাথ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হচ্ছেন মুহিবুর রহমান!

আমাদের বুরাইয়া হুজুর,মাওলানা মাহমুদ হাসান চৌধুরী রায়হান

হাওড় বার্তা ডেস্কঃ
  • আপডেট শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২১
  • ৩৩৭ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি 

কিছু প্রিয়জনের স্মৃতি ভোলা যায় না। রক্ত সম্পর্কের আত্নীয় না হয়েও যারা আত্নার আত্নীয়, কতইনা আপনজন। হযরত মাওলানা আব্দুল কাদির ছাহেব (র.) বুরাইয়া হুজুর আমাদের তেমনি এক আত্নীয় ছিলেন।

বুরাইয়া হুজুরের সাথে আমাদের স্মৃতি অনেকটা মাহে রামাদান কেন্দ্রিক। রামাদান আসলে আমরা হুজুরের জন্য অপেক্ষা করতাম। তিনি না পৌছা পর্যন্ত মনে হতো কি যেন অপূর্ণতা র‍য়ে গেছে। ফুলতলী এসে চিরচনা সেই দরাজ হাসি ছড়িয়ে বলতেন আলহামদুলিল্লাহ, আমি চলে এসেছি।

দারুল কিরাতের খিদমাতে জড়িত থাকার সুবাদে দীর্ঘদিন হুজুরকে খুব কাছে থেকে দেখার সুযোগ হয়েছে। তিনি ছিলেন একজন আবিদ, কোরআনে পাকের আশিক, সদাহাস্যোজ্বল, আল্লাহর ওলী। হযরত আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (র.)-এর সাথে তাঁর আন্তরিকতা কল্পনাকেও হার মানাত। দারুল কিরাতের কোন বিষয়ে বিশৃঙ্খলা/অনিয়ম দেখে ছাহেব কিবলাহ রাগান্বিত হলে বাবা-চাচারা তখন সামনে যেতেন না। বুরাইয়ার হুজুর বাচ্চাদের মতো ছাহেবের সামনে হাজির হয়ে সব দায়ই মাথা পেতে নিতেন। ইন্তেকালের পর যখনই ছাহেব কিবলাহ সম্পর্কে কোন আলোচনা হতো অঝোর ধারায় তাঁকে কাদতে দেখেছি।তিনি ছিলেন হযরত ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (র.)-এর সুযোগ্য খলিফা। কথায় আছে মানুষ যখন কাউকে ভালোবাসে তার সবকিছুই তার ভালো লাগে। ছাহেবজাদাগন বা এ বাড়ির কোন আত্নীয়-স্বজন এমনকি ছাহেব বাড়ির কাজের মানুষের সাথে হুজুরের অকৃত্রিম ও অমায়িক ব্যবহারে ছাহেব কিবলাহর প্রতি তাঁর মুহাব্বাতের প্রমাণ পাওয়া যেত।

আমাদের ওয়ালিদ মুহতারাম (মাইজম ছাহেব) কোন এক রামাদানে হুজুরকে উনার সন্তান-সন্ততি সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করলে তিনি দীর্ঘনিশ্বাস ফেলে জানালেন তাঁর কোন সন্তান নেই। তৎক্ষনাৎ হুজুরকে নিয়ে ছাহেব কিবলাহ (র.) এর কাছে গেলে তিনি দোয়া করলেন। আলহামদুলিল্লাহ, পরবর্তীতে আল্লাহ পাক তাঁকে দীর্ঘ ২১ বৎসর পর সন্তান দান করেন।

তিনি সুদীর্ঘ প্রায় ৩০ বছর ফুলতলীতে দারুল কিরাত প্রধান কেন্দ্রে নি:স্বার্থভাবে খিদমাত আনজাম দিয়েছেন। দারুল কিরাতের খিদমাতে কঠোর পরিশ্রম করেছেন। বিশেষত: খাবার বিতরণের সময় হুজুরই শৃঙ্খলা রক্ষায় নেতৃত্ব দিতেন । চরম বৃষ্টির দিনে সেহরির সময়ে মাথায় করে বয়ে এনে ছাত্রদের খাবার বিতরণ করতেন। বাল্যকালে আমরা দেখেছি হুজুর ফুলতলীতে মসজিদের কাছের বাংলাঘরে থাকতেন। তখনকার সময়ে ভারতের মাওলানা মুবাশ্বির আহমদ ছাহেবও হুজুরের সাথে থাকতে

সর্বশেষ সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

সব ধরনের সংবাদ পেতে ক্লিক করুন।
দৈনিক হাওড় বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2019
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-2281