বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ১২:২৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দেশবাসীকে পবিত্র ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কবি মোঃ সহিদ মিয়াদেশবাসীকে পবিত্র ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা জানালেন হাওড় বার্তার নির্বাহী সম্পাদক আনিসুর রহমান পলাশসবাইকে ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা জানালেন সুনামগঞ্জের চিত্রের সম্পাদকশাল্লার বীরাঙ্গনা মুক্তিযোদ্ধা জমিলা বেগম আর নেই।কথা রাখলেন সিসিক মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী -!!ছাত‌কে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচনে প্রধান শিক্ষ‌কের বাধা-!!যুক্তরাজ্যে ছাতক এডুকেশন ট্রাস্টের অভিষেক অনুষ্ঠিত।শিল্পকলা প্রতিযোগিতায় রবীন্দ্র সংগীতে প্রথম কাব্য চক্রবর্তী। সুনামগঞ্জের মুজিব পার্কে তরুণ-তরুণীকে মারধরের ঘটনায় ধরাছোয়ার বাইরে দুই আসামী।কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে ব্রাদার্স কমিউনিটি’র সেলাই মেশিন বিতরণ। 

জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ উপনির্বাচন নিরব নৌকা সরব খেজুর গাছ বেকায়দায় কাপ পিরিস

এম.আর সজিব সুনামগঞ্জ :
  • সংবাদ প্রকাশ রবিবার, ২১ মে, ২০২৩
  • ৭৬০ বার পড়া হয়েছে

জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ উপনির্বাচন আগামী ২৫মে। আর মাত্র ৪দিন বাকী। কিন্তু এখন পর্যন্ত নির্বাচন জমে উঠেনি। সরেজমিন উপস্থিত হয়ে জানা গেছে সাধারণ মানুষের মাঝে ভোট নিয়ে তেমন একটা আগ্রহ নেই। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের প্রচার প্রচারণা চলছে ঢিমেতালে।
প্রবাসী অধ্যুসিত এলাকা জগন্নাথপুরের নির্বাচন সবসময় উৎসব মুখর হয়ে থাকে। এসময় পছন্দের প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে প্রবাসীরা দেশে আসেন। কিন্তু এবারের নির্বাচনে তেমন পরিবেশ এখনো তৈরি হয়নি।
উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ এলাকা পৌরসভার ভোটারদের সাথে আলাপ করে এসব চিত্র পাওয়া গেছে। ভোটারদের মনে হতাশার সুর। নির্বাচন করে কি লাভ? যদি পছন্দের প্রার্থীকে দিয়ে নির্বাচিত করতে না পারি?
ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের প্রার্থী জনাব নুরুল ইসলাম দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে ব্যস্থ সময় অতিক্রম করছেন। ধীরে ধীরে তাদের কার্যক্রম বৃদ্ধি পাচ্ছে। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি জনাব নুরুল ইসলাম এখনো জনমত তৈরি করতে পারেননি। প্রচার প্রচারণায়ও রয়েছেন অনেকটা পিছিয়ে। শহরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় পোস্টার বা ফেস্টুন তেমন একটা নজরে পেড়নি।

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের প্রার্থী যুক্তরাজ্য প্রবাসী মাওলানা আব্দুল কাইয়ূম কামালী নির্বাচনী মাঠে নতুন মুখ হলেও একাধিক কারণে তিনি এগিয়ে রয়েছেন। তার পক্ষে সার্বক্ষণিক মাঠে রয়েছেন সাবেক এমপি এডভোকেট মাওলানা শাহীনূর পাশা চৌধুরীসহ তাঁর দলের জেলা নেতৃবৃন্দ। ঐতিহ্যগতভাবে সৈয়দপুর ও পাইলগাও ইউনিয়নে রয়েছে জমিয়তের বিশাল ভোটব্যাংক। সাবেক এমপির ব্যক্তিগত ইমেজ ও খেজুর গাছের ভোটব্যাংক নিয়ে মাওলানা কামালী মূল প্রতিদ্বন্দ্বীতায় চলে এসেছেন।
দলের তৃণমূল নেতাকর্মীরা বিগত দিনের চাইতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাঁর পক্ষে জোরালো কাজ করছেন। প্রচার প্রচারণায় এখন পর্যন্ত তিনি সবার চেয়ে এগিয়ে রয়েছেন। শেষ পর্যন্ত বাজিমাত করতে পারে খেজুর গাছের প্রার্থী মাওলানা কামালী এমনটা মনে করছেন রাজনৈতিক যোদ্ধারা।
সৈয়দ তালহা আলম গত বছর খেজুর গাছ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে এসে চমক সৃষ্টি করেন। কিন্তু নির্বাচন পরবর্তী কোনো কারণ ছাড়া তাঁর দলত্যাগে নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ। এটাকে তাঁরা দলের সাথে ডিগবাজি হিসেবে দেখছেন। সাধারণ জনগণের নিকটও বিষয়টি প্রশ্নবিদ্ধ। এর একটি নেতিবাচক প্রভাব পড়ায় তিনি বেকায়দায় আছেন। গত নির্বাচনে মূল প্রতিদ্বন্দ্বীতায় চলে আসা তালহা আলম কাপ পিরিচ নিয়ে কতটুকু এগিয়ে যাবেন সেটি সময় বলে দিবে।
স্বতন্ত্র প্রার্থী জনাব হারুনুর রশীদ আনারস প্রতীক নিয়ে লড়ছেন। তার নিজ ইউনিয়ন হলদীপুরে ভালো অবস্থান তৈরি করতে পারলেও মূল প্রতিদ্বন্দ্বীতায় আসতে পারবেন বলে মনে হয়না।
জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ উপনির্বাচনে কে বিজয়ী হবেন? মূল প্রতিদ্বন্দ্বীতায় কারা থাকবেন সেটি জানার জন্য আরো কয়েকদিন অপেক্ষা করতে হবে। একটি প্রতিদ্বন্দ্বীতা মূলক নিরপেক্ষ নির্বাচন চান জগন্নাথপুর উপজেলাবাসী।

সর্বশেষ সংবাদ পেতে চোখ রাখুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সব ধরনের সংবাদ
বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তর থেকে নিবন্ধনকৃত পত্রিকা। © All rights reserved © 2018-2024 Haworbarta.com
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-2281