রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:২১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
নাটাই ঐক্যবদ্ধ সংগঠনের সদস্যদের বিশেষ সম্মাননা প্রদানবিশ্বনাথে নারী নির্যাতন মামলার অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের দাবিতে মানববন্ধন৯ লাখ টাকার ইয়াবাসহ, ২যুবক গ্রেফতারকুমারখালীতে উপজেলা বিএনপির ‘অবৈধ’ আহবায়ক কমিটি বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলননাসিরনগরে বাংলাদেশ যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা শেখ ফজলুল হক মনি’র জন্মদিন পালিতখুলনা রিপোর্টার্স ক্লাবের নতুন কমিটি গঠনপঞ্চম ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে যশোর সদর ও কেশবপুরে নৌকার মাঝি হলেন যারাশান্তিগঞ্জ উপজেলার সরদপুর ব্রীজের পশ্চিম পাড় ধসে হুমকির মুখে পড়েছে স্বাভাবিক যান চলাচল।শহীদ জসিম উদ্দিন স্মৃতিসংসদ’ এর উদ্যোগে দোয়া মাহফিল ও শোকসভাকুষ্টিয়া জাতীয় মহিলা শ্রমিক লীগের বিজয় মিউজিক অন দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

নাসিরনগরে উত্তর বাল্লা বিলের অবৈধ স্কীম বাতিলে স্মারকলিপি-হাওড় বার্তা

হাওড় বার্তা ডেস্কঃ
  • আপডেট বুধবার, ৯ জুন, ২০২১
  • ১৮৮ বার পড়া হয়েছে

নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়) প্রতিনিধিঃ জেলার নাসিরনগর ইউনিয়ন ও ভিটাডুবী ধীবর সনবায় সমিতি লিঃ এর সদস্যগণ ও এলাকার হাজার হাজার মৎস্যজীবি বিল উত্তর বাল্লা গাংকুল পাড়া মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিঃ এর নামে ৬ বছরের স্কীম বাতিলে স্মারকলিপির পর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রাজস্ব এর তদন্ত প্রদান।

স্মারকলিপিতে জানান, নাসিরনগর ইউনিয়ন ও ভিটাডুবী ধীবর সমবায় সমিতির ৮৫৩ জন সদস্য রয়েছে। উক্ত সমিতির মাধ্যমে দুই ইউনিয়নের প্রায় ১০(দশ) হাজার মৎস্যজীবি এবং জেলে সম্প্রদায় তাদের জীবন জীবিকা জন্য একমাত্র বিল উত্তর বাল্লা।সমিতির সভাপতি/ সাধারণ সম্পাদক জানতে পারে এই বিল উত্তরবাল্লা গাংকুলপাড়া মৎস্যজীবি সমিতির নামে স্কীম মাধ্যমে দেয়ার জন্য আবেদন করেছে। গাংকুলপাড়া সমিতির নামে বিল উত্তরবাল্লা দেয়া হলে ২ টি ইউনিয়নের ১০ (দশ) হাজার জেলে ও মৎস্যজীবি সম্প্রদায় অনাহারে মারা যাবে। তাছাড়া আইন শৃঙ্খলার মারাত্মক অবনতি হতে পারে।উক্ত সমিতির সভাপতির নামের স্বাক্ষর জালিয়াতিসহ নাসিরনগর ইউনিয়ন ও ভিটাডুবী ধীবর সমিতির একাধিক সদস্যকে গাংকুলপাড়া সমিতির সদস্য অন্তর্ভুক্ত করেছে যা সমবায় আইনে দন্ডনীয় অপরাধ। স্মারকলিপি প্রদানের পর ৮ জুন মঙ্গলবার উপজেলা সম্প্রসারণ প্রশাসনিক ভবন মিলনায়তনে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রাজস্ব দুই সমিতির সদস্যদের উপস্থিতিতে তদন্ত কার্যক্রম সম্পন্ন করেন। তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনা করার সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, রাফি উদ্দিন আহম্মদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হালিমা খাতুন, জেলা সমবায় কর্মকর্তা, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা শুভ্র সরকার, উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা ফারহানা খন্দকার ও থানা অফিসার ইনচার্জ তদন্ত আ স ম আতিকুর রহমান। তদন্ত কার্যক্রমের পর হাজার হাজার জেলে ও মৎস্যজীবি উপস্থিতি দেখে তিনি জানান, এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মহোদয়ের সাথে আলাপ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

এই সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-2281