বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:৩৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
দুর্বৃত্তের এসিড নিক্ষেপে ঝলসে গেছে যুবক।প্রচন্ড কুয়াশা ও শীতের সকালে কাজে ব্যাস্ত যশোর মনিরামপুরের চাষীরাকোম্পানীগঞ্জে কারিগরি কলেজের সম্মুখে দুটো মোটর বাইকের সংঘর্ষ।বিশ্বনাথে পুকুরে ডুবে প্রতিবন্ধী এক যুবতীর মৃত্যুনাসিরনগরে উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা পাঠদান কার্যক্রম উদ্বোধনবিশ্বনাথে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে সবজি-ফসলের ক্ষতির আশঙ্কারুপিয়া বেগমের আকুতি ছাতকে রাব্বি হত্যা মামলা আসামীদের ফাঁসির দাবীতে সংবাদ সম্মেলনসিলেটে শিক্ষার্থীরা গণপরিবহনে চলাচলে হাফ ভাড়া দিতে পারবেনম‌হেশখালী‌তে মৃত ম‌হিষের মাংস বিক্রয়কা‌লে পিতা পুত্র আটকবিশ্বনাথে এসআই বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহনের অভিযোগ

মহেশখালীর কালারমারছড়ায় আগুনে পুড়ে ছাই ৭ টি দোকান! ক্ষয়ক্ষতি প্রায় ১ কোটি টাকা!

নুরুল বশর
  • আপডেট রবিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২১
  • ২৯ বার পড়া হয়েছে

 

নুরুল বশরে তথ্য চিত্রে বিস্তারিত

মহেশখালীর কালারমারছড়া ইউনিয়নের দক্ষিণ চিকনীপাড়া বাজারে আগুন লেগে ৭ টি দোকান আগুনে ভস্মীভূত হয়েছে।

আজ ২৫ ই এপ্রিল সকাল ৭ টা ১৫ মিনিটের দিকে পার্শবর্তী গ্রাম তথা সোনার পাড়া গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুল হাকিমের(৯৫) মালিকানাধীন মার্কেটে এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

পরে স্থানীয়দের দীর্ঘ প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। বৈদ‍্যুতিক শকড থেকেই অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারণা করছেন ব‍্যাবসায়ীরা।

ভস্মীভূত দোকানগুলোর মধ্যে মনজুর আলম এবং আবু ছিদ্দিকের ২ টি ফার্মেসি, নূর কবির এবং কফিল উদ্দিনের ২ টি মুদির দোকান, আব্দুল্লাহ আল মামুনের ১ টি কুলিং কর্ণার, আনচারুল করিমের একটি পান- সোপারির গোডাউন এবং জুয়েল কবিরের ১ টি ইলেকট্রিকের দোকান ছিল।

ক্ষতিগ্রস্ত ফার্মেসী মালিক মনজুর আলম জানান,
আমার দোকানে নগদ ৭ লক্ষ টাকা সহ প্রায় ১০ থেকে ১৫ লক্ষ টাকার মালামাল ছিল। ফায়ার সার্ভিসের লোকজন সঠিক সময় আসতে না পারায় আমাদের সম্পূর্ণ মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ৭ টি দোকানে সবমিলিয়ে প্রায় ১ কোটি টাকার মতো মালামাল পুড়ে গেছে। করোনাকালীন সময়ে আমাদের এই দূরবস্থা নিয়ে আমরা শঙ্কিত। আমরা সরকারের কাছে সহযোগিতা কামনা করছি।

এদিকে উপজেলার সর্ব দক্ষিণে কেবল একটি ফায়ার সার্ভিস থাকায়- ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা দীর্ঘ প্রায় ২০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছনোর পূর্বেই সব পুড়ে যাওয়ায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী এবং ব‍্যাবসায়ীরা।

তারা বলেন, আমরা মহেশখালীর উত্তর প্রান্তে একটি ফায়ার সার্ভিস স্থাপনের জোর দাবী জানাচ্ছি। যাতে ফায়ার সার্ভিসের সঠিক সেবার অভাবে ভবিষ্যতে আর কারো আমাদের মতো সর্বশূণ‍্য হয়ে পড়তে না হয়।

তবে আগুন নিয়ন্ত্রণ আনতে ১০ থেকে ২০জন মানুষ আহত হয় বলে জানা যায়,

এই সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-2281