রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:৪৫ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
বিশ্বনাথে মোক্তার আলী ফাউন্ডেশন মেধাবৃত্তির পুরস্কার বিতরণদোয়ারাবাজারে কেন্দ্র ফি’র নামে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়, এলাকাজুড়ে মিশ্রপ্রতিক্রিয়াতৃণমূল আওয়ামী লীগের বাড়িতে কেন্দ্রীয় যুবলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য হুমায়ুন সুলতান শাদাবদোয়ারাবাজারে ফুটবল ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিতরাজস্থলী বাঙ্গালহালিয়া আর্মি ক্যাম্প উদ্যােগের ২৫ বর্ষ পূর্তি শান্তি চুক্তি উদযাপন ও র্যালী অনুষ্ঠান।বাঙ্গালহালিয়া পাহাড়িকা পাবলিক স্কুলে বার্ষিক ক্লাশ পার্টি ও অভিভাবক মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত।ফসলের সুরক্ষায় হাওরাঞ্চলের নদীসমূহ খননের দাবীবিশ্বনাথে বিয়ের আগের দিন লন্ডন প্রবাসী তরুণীর মর্মান্তিক মৃত্যুদোয়ারাবাজারে মাদক বিরোধী সমাবেশজিপিএ ৫ পেয়ে উত্তীর্ণ আলমদিনা একাডেমির সাবেক ৪ শিক্ষার্থী

প্রযুক্তির অপব্যবহারে বাড়ছে দিন দিন সামাজিক দূষণ-হাওড় বার্তা

মোঃ আবু খালেদ
  • আপডেট শনিবার, ১৭ জুলাই, ২০২১
  • ৪৪৯ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি দক্ষিণ সুনামগঞ্জ

বর্তমান সময়ে বাংলাদেশকে ডিজিটাল হিসেবে বিশ্বের কাছে তুলে ধরা হয়েছে।তার মধ্যে অন্যতম হলো প্রযুক্তি। প্রযুক্তি দিন দিন যত সহজ হচ্ছে ততই বাড়ছে তার অপব্যবহার।সেই প্রযুক্তির অপব্যবহারে মধ্যে অন্যতম হলো ”টিকটক”। চীন থেকে আসা এই অ্যাপ ‘টিকটক” যেন চীন থেকে আসা ‘করোনা ভাইরাসের’ মত আমাদের সমাজে ছড়াচ্ছে। এই অ্যাপটি প্রতিভাবান ও প্রতিভাহীন যে কেউ খুব সহজে ব্যবহার করতে পারে। প্রয়োজন শুধু স্মার্টফোন ও ইন্টারনেট সংযোগ।

”টিকটক” এর একটি তথ্য মতে জানা যায় প্রায় ১০০ কোটি মানুষ অ্যাপটি ব্যবহার করছে। সহজ বিনোদনের এই মাধ্যমটিতে অনেকেই নিজ ভাষা ছেড়ে অন্য ভাষায় ঠোঁট মেলাচ্ছে, অভিনয় করছে। অধিকাংশ ভিডিওতে দেখা যায় অশোভন পোশাক ও অশ্লীল পদ্ধতিতে নৃত্য প্রদর্শন কিংবা কোনো ভাইরাল হওয়া গান বা ডায়লগ এর সাথে মিলিয়ে ভিডিও প্রদর্শন করা।

প্রথমেই এর প্রভাব যুব সমাজের উপরে বিস্তার করে, এখন দেখা যায় ধীরে ধীরে সকল শ্রেণীর ওপর প্রভাব ফেলছে। এক মিনিটের এই ভিডিওগুলো তে দেখা যাচ্ছে ফ্রেন্ড ফলোআরো ও অনেক বেশি। আমি সেলিব্রিটি না বললেও এতে যোগ দিয়েছেন সিনেমার অনেক তারকারা ও। ইদানিং ‘টিকটকে’ নাকি অর্থ পাওয়া যায়। টিকটকারদের মতে যদি এটুকু পরিশ্রমে সেলিব্রিটি ও অর্থ পাওয়া যায় তাহলে ক্ষতি কি।

আসলে ফেসবুক, ইউটিউব, ইনস্টাগ্রাম, হোয়াটসঅ্যাপ, টিকটক, কোন মাধ্যমই খারাপ নয়। খারাপ হয় তার ব্যবহারের দোষে। আর প্রযুক্তির অপব্যবহারের ফলে বাড়ছে সামাজিক ও পারিবারিক অস্থিরতা। আমার মতে,এ থেকে রক্ষা পেতে হলে পরিবারের পাশাপাশি সমাজ ও সরকারি নীতি নির্ধারকদের ও আন্তরিকভাবে এগিয়ে আসতে হবে।

সর্বশেষ সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

সব ধরনের সংবাদ পেতে ক্লিক করুন।
দৈনিক হাওড় বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2019
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-2281