রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:১৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
নাটাই ঐক্যবদ্ধ সংগঠনের সদস্যদের বিশেষ সম্মাননা প্রদানবিশ্বনাথে নারী নির্যাতন মামলার অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের দাবিতে মানববন্ধন৯ লাখ টাকার ইয়াবাসহ, ২যুবক গ্রেফতারকুমারখালীতে উপজেলা বিএনপির ‘অবৈধ’ আহবায়ক কমিটি বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলননাসিরনগরে বাংলাদেশ যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা শেখ ফজলুল হক মনি’র জন্মদিন পালিতখুলনা রিপোর্টার্স ক্লাবের নতুন কমিটি গঠনপঞ্চম ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে যশোর সদর ও কেশবপুরে নৌকার মাঝি হলেন যারাশান্তিগঞ্জ উপজেলার সরদপুর ব্রীজের পশ্চিম পাড় ধসে হুমকির মুখে পড়েছে স্বাভাবিক যান চলাচল।শহীদ জসিম উদ্দিন স্মৃতিসংসদ’ এর উদ্যোগে দোয়া মাহফিল ও শোকসভাকুষ্টিয়া জাতীয় মহিলা শ্রমিক লীগের বিজয় মিউজিক অন দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

কোম্পানীগঞ্জের পুটামারায় তুচ্ছ ঘটনায় একজন খুন,,হাওড় বার্তা 

নোমান আহমেদ
  • আপডেট বৃহস্পতিবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২১
  • ৫২ বার পড়া হয়েছে

 

স্টাফ রিপোর্টার (সিলেট)কোম্পানীগঞ্জঃ সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার পুটামারা গ্রামে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় হারুন মিয়া (৫০) নামের এক ব্যক্তি খুন এবং ফয়জুল মিয়া (৪০) নামের এক ব্যক্তির অবস্থা আশংকাজনক। নিহত হারুন মিয়া পুটামারা গ্রামের পশ্চিম পাড়ার সিরাজ মিয়ার ছেলে।

গত বুধবার দুপুর প্রায় ৩ টার সময় উপজেলার পুটামারা গ্রামে দুই পক্ষের মধ্যকার সংঘর্ষে গুরুতর আহত অবস্থায় হারুন মিয়াকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হলে, চিকিৎসাধীন অবস্থায় হারুন মিয়া নিহত হয়।

এ ঘটনায় স্থানীয় বিক্ষুদ্ধ জনতা অভিযান চালিয়ে আব্দুল মুছব্বির মিয়ার পুত্র আইন উদ্দিন (৩২) নামক হত্যায় সংশ্লিষ্ট এক অভিযুক্তকে আটক করে পুলিশের হাতে সোপর্দ করে।

সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, পুটামারা গ্রামের পশ্চিম পাড়ার নুরু উদ্দিনের স্ত্রী আয়েশা বেগমের কাছে সুদে টাকা দেয় একই গ্রামের আলী আহমদের স্ত্রী সুলতানা বেগম। প্রদেয় টাকার সুদের বিনিময়ে ধান দেওয়ার কথা হয়। ঘটনাস্থলে সুলতানা বেগম তার প্রাপ্য সুদ বাবদ ধান আনতে গেলে ধানের ওজন কম বেশী নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে তর্ক বিতর্ক শুরু হয়। দুই পক্ষের তর্ক বিতর্কে চলাকালে হারুন মিয়া ঘটনাস্থলে পৌঁছলে অবস্থা চরম আকার ধারন করে। এ সময় উপস্থিত নুরু উদ্দিন মিয়া ও কয়েকজন মিলে হারুন মিয়াকে অপদস্থ করে।

এ ঘটনার সূত্র ধরে হারুন মিয়া ও নুরু উদ্দিনের পক্ষের লোকজনের মধ্যে ধাওয়া পালটা ধাওয়া শুরু হয়। দুই পক্ষের ধাওয়া পালটা ধাওয়ায় অন্তত ১৫ থেকে ২০ জন আহত হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় হারুন মিয়াসহ কয়েক জনকে তাৎক্ষণিকভাবে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় (২৯ এপ্রিল) বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার সময় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হারুন মিয়া মারা যান এবং আহতদের মধ্যে ফয়জুল মিয়ার অবস্থা খুবই আশংকাজনক রয়েছে।

সংঘর্ষের খবর পেয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ কেএম নজরুল জাহান কাজল নিহতের পরিবারের কাছে ছুটে যান এবং অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন।
ওসি সাংবাদিকদের বলেন, নিহতের লাশ সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।এঘটনায় একজন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-2281