বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০১:২৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
সুনামগঞ্জের মধ্যনগর থানার কবি শাহীনুর আলম সুজনের একটি কবিতা”সাংবাদিক শাহজালালের জন্মদিনে সাংবাদিক আবদুল্লাহ আল মামুনের শুভেচ্ছাতালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নেতৃত্বে অমিক্রণ প্রতিরোধে জনসচেতনতা কর্মসূচি পালিতমনিরামপুরে গ্রাম পর্যায়ে গনটিকা কার্যক্রম শুরুছাতক উত্তর উপজেলা তালামীযের সাংগঠনিক সম্পাদক কামরানের বিদেশ গমণ উপলক্ষে বিদায়ী সংবর্ধনামনিরামপুর বেকারিতে আগুন,১৫ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতিচন্দ্রঘোনা থানা অভিযানে পলাতক ওয়ারেন্ট আসামী গ্রেপ্তার -২বিশ্বনাথে দুই ইউনিয়নে মক ভোটিং ২৯ জানুয়ারিজাপা চেয়ারম্যান জিএম কাদের করোনায় আক্রান্ত : রোগমুক্তিকামনায় দেশবাসির কাছে দোয়া চেয়েছেন জাপা নেতা রুহুল আমিনসিলেট শাবিপ্রবি শিক্ষাঙ্গন টি যুদ্ধস্থানে পরিনত অতপর অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ

বিশ্বনাথে পাঁচমাসেও চিহ্নিত করা হয়নি ঝুঁকিপূর্ণ ভবন

হাওড় বার্তা ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট বৃহস্পতিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৪১ বার পড়া হয়েছে

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি : সিলেটের বিশ্বনাথে ঝুঁকিপূর্ণ ভবন চিহ্নিত করণের জন্যে কমিটি গঠনের পর পাঁচমাস পেরিয়ে গেলেও চিহ্নিত করা হয়নি ঝুঁকিপূর্ণ ভবন।

ফলে, এতদিনেও জানা যায়নি উপজেলার কোন ভবন অতিমাত্রার ও কোন ভবন কমমাত্রার ভূমিকম্প ঝুঁকিতে রয়েছে।

আর কোন ভবনগুলোই বা ভূমিকম্প সহনীয়। গত শুক্রবার ভোরে দেশের বিভিন্ন স্থানের ন্যায় বিশ্বনাথেও ভূমিকম্প অনুভূত হওয়ায় এ উপজেলার ঝুঁকিপূর্ণ ভবন চিহ্নিতের বিষয়টি ফের আলোচনায় উঠে আসে।

বিগত ২৬ জুন উপজেলা দূর্যোগ প্রতিরোধ বিষয়ক কমিটির সভায় সিলেটে ঘনঘন ভূমিকম্পের প্রেক্ষিতে বিশ্বনাথে ভূমিকম্প ঝুঁকি হ্রাসে ঝুঁকিপূর্ণ ভবন চিহ্নিত করতে ৫ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়।

উপজেলা প্রকৌশলী আবু সাঈদকে আহ্বায়ক ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মিলন কান্তি রায়কে সদস্য সচিব করে গঠিত কমিটিতে সদস্য করা হয়।

বিশ্বনাথ পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী আসিফ খান, উপজেলা উপ-সহকারী প্রকৌশলী প্রদীপ চন্দ্র দেবনাথ, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন শাখার উপ-সহকারী প্রকৌশলী জাহাঙ্গীর আলম।

ওই কমিটিকে পরবর্তী একমাসের মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ ভবন চিহ্নিত করে উপজেলা দূর্যোগ প্রতিরোধ বিষয়ক কমিটির কাছে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়।

বিষয়টি সে সময় সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন তৎকালিন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুমন চন্দ্র দাশ।

এ বিষয়ে কথা হলে কমিটির আহ্বায়ক উপজেলা প্রকৌশলী আবু সাঈদ বলেন, ‘কমিটি গঠনের বিষয়টি আপনাদের (সাংবাদিকদের) কাছেই শোনেছি। এর কোনো রেজুলেশনও হয় নাই।

আমাদেরকে লিখিত আকারে দায়িত্বও দেওয়া হয় নাই। ২৬ জুনের সভায় কমিটির বিষয়ে শুধু মৌখিক আলোচনা হয়েছিল।

যে কারণে উপজেলার ঝুঁকিপূর্ণ ভবনও চিহ্নিত করা হয় নাই।’

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বেগম নুসরাত জাহান সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি এ উপজেলায় নতুন যোগদান করেছি। বিষয়টি সম্পর্কে আপাতত অবগত নই। তবে, অধিক গুরুত্বসহকারে খোঁজ নিয়ে দেখছি বলে তিনি জানান।’

এই সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-2281