রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:১৮ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
বাঙ্গালহালিয়া খেলোয়ার প্রেমিকদের মাঝে ক্রীড়া সামগ্ৰী বিতরণ করেছেন জেলা পরিষদের সদস্য নিউচিং মারমাসাংবাদিক পীর হাবিবের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ।সিমোপা’র ৮০৯ তম সাহিত্য আসর অনুষ্ঠিত৫ই ফেব্রুয়ারি আউশকান্দি হীরাগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির নির্বাচন।সুনামগঞ্জের মোহনপুরে সন্ত্রাসীদের হামলায় বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ।সুনামগঞ্জ জেলা আ.লীগর সম্মেলনে আলোচনায় শংকর চন্দ্র দাস। দাম্মামে আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (র.) ঈসালে সাওয়াব মাহফিল সম্পন্ন।শান্তিগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের মাসিক বৈঠক সম্পন্ননবীগঞ্জ ইউনিটি ফর ইউনিভার্স হিউম্যান রাইটস অফ বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের কমিটি গঠনআনোয়ারায় নতুন ইউএনও যোগদান

৮০ বছরেও বয়স্ক ভাতার কার্ড হয়নি সুরো বালার,,হাওড় বার্তা 

তপন দাস
  • আপডেট শুক্রবার, ২১ মে, ২০২১
  • ৪৭৮ বার পড়া হয়েছে

নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি

মুই এখন বুড়িমানুষ বাহে কোন কাম কাইজ করিবার পাও না।
কাহো কাজোত নেয় না করিবার পাও না বলে তাও জোর করি মানুষের বাড়িত কাজ করি খাও।

মানুষ কাজোত না নিলে না খেয়া থাকো কাহো খাবার দেয় না মোর বেটা গিলাও কোমিলাত থাকে বৌগুলোক কেও নিয়া গেইছে।

মোর বযস ৮ ০ হইচে তাও মুই কোন পাও না পরিষদ ( ইউনিয়ন পরিষদ) থাকি।

একগিলা মানুষ কয় পরিষদে নাকি শেখে বেটি হাসিনা হামার বুড়ি মানুষের জন্য নাকি কি একখান কার্ড করি দেয় তা মুই পাইম না বাহে।

কথা গুলো বলেছেন নীলফামারী জেলার জলঢাকা উপজেলার কৈমারী ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের বাড়াই পাড়া গ্রামের৷ মৃত খগেন্দ্র নাথের সহধর্মিণী শ্রী মতি সুরো বালা রায় ।

সুরো বালা রায় ১৯৪২ সালের ২৩ জুলাই জন্ম গ্রহন করেন এবং এখন তার বয়স ৮০ বছর হলেও তিনি পান না কোন সরকারী সাহায্য এবং এখন নিউজ হয়নি তার কোন বয়স্ক ভাতার কার্ড বা বিধুবা ভাতার কার্ড ।

থাকেন একটি কুড়ে ঘরে তবুও পান নি কোন সরকারী ঘর।

এবিষয়ে কৈমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের সাথে কথা বলার চেষ্টা করা হলে তিনি এবিষয়ে কোন মন্তব্য করতে রাজি হয়নি এবং ৭ নং ওয়ার্ডের মেম্বার ( নাম বলতে রাজি হয়নি) এর সাথে কথা হলে তিনি বলেন আমি খবর টি আপনার মাধ্যমে শুনলাম আর এর আগে এবিষয়ে কোন ব্যক্তি আমাকে অবহিত করেনি এবং আমি আগে এবিষয়ে জানতে পারলে অবশ্যই ওনাকে একটি বয়স্ক ভাতার কার্ড করে দিতাম।

এবিষয়ে জলঢাকা উপজেলার ইউএনও কর্মকর্তা মাহবুব হাসানের সাথে কথা হলে তিনি বলেন আমি আগে জানতাম আমার উপজেলায় ৮০ বছরের একটি বিধুবা নারী আছে যিনি এখনো কোন সরকারী সহায়তা বিধুবা ভাতা বা বয়স্ক ভাতার কার্ড পায়নি তবে আমি এখন বিষয়টি দেখবো।

এদিকে জলঢাকা উপজেলার সমাজসেবা এর সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তার ফোন ব্যস্ত পাওয়া যায় ।

সর্বশেষ সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সব ধরনের সংবাদ পেতে ক্লিক করুন।
চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তরের নিবন্ধনকৃত পত্রিকা ©
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-2281